রংপুর সংবাদ » বুড়িমারী স্থলবন্দর চেকপোস্ট দিয়ে ভারতে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা

বুড়িমারী স্থলবন্দর চেকপোস্ট দিয়ে ভারতে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা


রংপুর সংবাদ মার্চ ১৩, ২০২০, ১:২০ অপরাহ্ন
বুড়িমারী স্থলবন্দর চেকপোস্ট দিয়ে ভারতে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা

মাহির খান,লালমনিরহাটঃসম্প্রতি করোনাভাইরাসের প্রাণঘাতী প্রাদুর্ভাবের কারণে লালমনিরহাটের বুড়িমারী স্থলবন্দর ও ভারতের চ্যাংরাবান্ধা স্থলবন্দর চেকপোস্ট দিয়ে ভারত প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে।

শুক্রবার (১৩ মার্চ) বিকেল ৫ থেকে বুড়িমারী স্থলবন্দর চেকপোস্ট দিয়ে ভারতে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা করেছেন ভারতীয় ইমিগ্রেশন পুলিশ।

নিষেধাজ্ঞায় বলা হয়েছে, কেবলমাত্র ভারতীয় নাগরিকরাই বাংলাদেশে থেকে এই চেকপোস্ট দিয়ে ভারতে প্রবেশ করতে পারবে।
শুক্রবার সকালে ভারতের চ্যাংরাবান্ধা স্থলবন্দর চেকপোষ্টের ইমিগ্রেশন ইনচার্জ নার্জিনারী জানিয়েছেন, বাংলাদেশ থেকে শুক্রবার বিকেল ৫টা পর্যন্ত বাংলাদেশ থেকে যাত্রীরা ভারতে প্রবেশ করতে পারবে। এর পর পরবর্তি নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত এ আদেশ বলবৎ থাকবে।

ইমিগ্রেশন পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, করোনাভাইরাস নিয়ন্ত্রণে ভারত সরকার এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এদিকে বুড়িমারী স্থলবন্দরে লালমনিরহাট স্বাস্থ্য বিভাগ করোনাভাইরাস শনাক্তে একটি মাত্র থার্মাল স্ক্যানার ব্যবহার করে করোনাভাইরাস পরীক্ষা করছেন।

বুড়িমারী স্থলবন্দরের দায়িত্বরত ইমিগ্রেশন পুলিশের এসআই আনোয়ার হোসেন বলেন, ভারতীয় ইমিগ্রেশন পুলিশ আজ শুক্রবার সকালে জানিয়েছেন বিকেল ৫ টার পর থেকে কোন বাংলাদেশী ভারতে প্রবেশ করতে পারবে না। আগামী ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত এ নিষেধাজ্ঞা থাকবে।

বুড়িমারী স্থলবন্দর সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক আবু সাঈদ নেওয়াজ নিশাত বলেন, বাংলাদেশীরা ভারতে প্রবেশ করতে না পারলেও বুড়িমারী স্থলবন্দরে আমদানি-রফতানির কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।

প্রসঙ্গত, ভারতের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে বলা হয়, করোনা ভাইরাসের ঘটনা তীব্রভাবে বেড়ে যাওয়ার কারণে আগামী ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত ভারতে সব ভিসা স্থগিত করা হবে। এটি কার্যকর হবে ১৩ মার্চ রাত ১২টা থেকে। তবে কূটনৈতিক, অফিসিয়াল, জাতিসংঘ ও আন্তর্জাতিক সংস্থা, চাকরি ও প্রকল্প ভিসা এই আদেশের বাইরে থাকবে বলে জানিয়েছে দেশটি।