1. rkarimlalmonirhat@gmail.com : Rezaul Karim Manik : Rezaul Karim Manik
  2. kibriyalalmonirhat84@gmail.com : Golam Kibriya : Golam Kibriya
  3. mukulrangpur16@gmail.com : Saiful Islam Mukul : Saiful Islam Mukul
  4. maniklalrangpur@gmail.com : রংপুর সংবাদ : রংপুর সংবাদ
রংপুরে নবজাতক উদ্ধারঃ দত্তক নিতে তোরজোর | রংপুর সংবাদ
রবিবার, ১৩ জুন ২০২১, ০২:৫৩ অপরাহ্ন

রংপুরে নবজাতক উদ্ধারঃ দত্তক নিতে তোরজোর

রাশেদ হোসেন রাব্বি
  • আপডেট সময় : রবিবার, ৬ জুন, ২০২১
  • ১৪

রংপুরের কেরানীপাড়া কেরামতিয়া মসজিদ সংলগ্ন গাছের নীচ থেকে দুই দিনের এক নবজাতককে উদ্ধার করা হয়েছে।

বুধবার (০২ জুন) বেলা পৌনে ১টার দিকে শিশুটি উদ্ধার করে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এদিকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিষয়টি ছড়িয়ে পরলে অনেকেই মেয়ে শিশুটিকে দত্তক নিতে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন। অনেকেই বিভিন্নভাবে দত্তক নিতে সুপারিশ করছেন পুলিশের কাছে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, বুধবার দুপুরে যোহরের নামাজের পূর্বে অনেকেই নামাজের প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। এ সময় মসজিদের পাশের মাঠে গাছের নিচ থেকে গোলাপি রঙের কাপড়ে মোড়ানো শিশুকে পড়ে থাকতে দেখেন মুসল্লীরা। এসময় আশেপাশের কয়েকজন মহিলা বাচ্ছাটিকে দুধ খাওয়ান এবং প্রাথমিক পরিচর্যা করেন।

বাচ্ছাটিকে দেখে পুলিশে খবর দেওয়া হলে পুলিশ নবজাতককে উদ্ধার করে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।
বর্তমানে শিশুটি রমেক হাসপাতালের ৯ নম্বর ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

বর্তমানে শিশুটি সুস্থ রয়েছে জানিয়ে রমেক হাসপাতালের পরিচালক ডা. রেজাউল করিম বলেন, নবজাতককে হাসপাতালে রাখা হয়েছে। শিশুটিকে জীবিত অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তবে নাড়ি না কাটায় ধারণা করা হচ্ছে শিশুটির বয়স এক-দুই দিন হবে। উদ্ধার হওয়া নবজাতকটি মেয়ে সন্তান। বর্তমানে তাকে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

এদিকে ওই নবজাতক শিশুটিকে দত্তক নিতে বিভিন্নভাবে চেষ্টা করছেন। থানায় এবং জেলা প্রশাসকের অফিসে যোগাযোগ করে সুপারিশ করছেন অনেকেই। রংপুরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হওয়ায় অনেকেই তার পিতামাতাকে ঘৃণাভরে ধিক্কার জানাচ্ছেন। আফসোস প্রকাশ করে দায়িত্ব নিতেও আগ্রহ প্রকাশ করছেন।

এছাড়াও এই প্রতিবেদকের একজন ১৯ বছর ধরে নিঃসন্তান এক মহিলা শিশুটিকে দত্তক নিতে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন।
এ বিষয়ে রংপুর মেট্টোপলিটন কোতোয়ালি থানার ওসি তদন্ত রাজিবুজ্জামান বসুনিয়া বলেন, শিশুটিকে উদ্ধার করে মেডিকেলে ভর্তি করা হয়েছে। অনেকেই দত্তক নিতে যোগাযোগ করছেন। আগামী দুই তিন দিন পর আদালতের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বিষয়টি নির্ধারণ করা হবে।

আপনার সোস্যাল মিডিয়ায় শেয়ার দিন

এই ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ

© ২০২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | রংপুর সংবাদ.কম
Theme Customization By NewsSun