1. rkarimlalmonirhat@gmail.com : Rezaul Karim Manik : Rezaul Karim Manik
  2. kibriyalalmonirhat84@gmail.com : Golam Kibriya : Golam Kibriya
  3. mukulrangpur16@gmail.com : Saiful Islam Mukul : Saiful Islam Mukul
  4. maniklalrangpur@gmail.com : রংপুর সংবাদ : রংপুর সংবাদ
গঙ্গাচড়ার জোড়া খুনের আসামী গ্রেফতার: এলাকাবাসীর মিষ্টি বিতরণ | রংপুর সংবাদ
বুধবার, ১৬ জুন ২০২১, ১০:১৭ অপরাহ্ন

গঙ্গাচড়ার জোড়া খুনের আসামী গ্রেফতার: এলাকাবাসীর মিষ্টি বিতরণ

আব্দুর রহিম পায়েল, গঙ্গাচড়া (রংপুর) প্রতিনিধি:
  • আপডেট সময় : মঙ্গলবার, ১ জুন, ২০২১

রংপুরের গঙ্গাচড়া উপজেলায় জোড়া খুনের ২ আসামী সন্ত্রাসী শাফিয়ার ও রহিম বকস গ্রেফতার হওয়ায় এলাকায় খুশির আমেজ বিরাজ করছে। খুশিতে এলাকাবাসী এক সপ্তাহ ধরে নিজেদের মধ্যে মিষ্টি বিতরণ করছে। ঘটনাটি উপজেলার আলমবিদিতর ইউনিয়নের।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্র জানায়, উপজেলার তিস্তা চরের বাগডহরা গ্রামে ইউপি সদস্য আজিজুল ইসলাম (৫৫) ও রেয়াজুল ইসলাম (৬০) প্রতিপক্ষের ছুরিকাঘাতে গত ৬ এপ্রিল দুপুরে খুন হয়।

আজিজুল ইসলামকে আনন্দ বাজার থেকে বাড়ী ফেরার পথে ওই গ্রামের মমিন আলীর বাড়ীর সামনে ও ভিতরে প্রতিপক্ষরা ছুরিকাঘাত করে। মুমর্ষু অবস্থায় তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে তার মৃত্যু হয়। একই দিন সামান্য সময়ে ব্যবধানে প্রতিপক্ষের রেয়াজুল ইসলামকে তার নিজ বাড়ীর উঠানে ছুরিকাঘাত ও জবাই করে হত্যা করা হয়।

এ দু’টি হত্যাকান্ডেরই পরিকল্পনাকারী, মদদদাতা, নির্দেশদাতা ও হত্যায় অংশগ্রহনকারী ছিল গ্রেফতার হওয়া সন্ত্রাসী শাফিয়ার রহমান শাফি (৩৭) ও রহিম বকস (৪৩)। শাফিয়ার রহমান আলমবিদিতর ইউনিয়নের মনিরাম গ্রামের মৃত মোবারক হোসেনের ছেলে এবং রহিম বকস একই ইউনিয়নের পাইকান বড়াইবাড়ী গ্রামের মৃত জসিম উদ্দিনের ছেলে। এদের বিরূদ্ধে গঙ্গাচড়া থানাসহ রংপুরের বিভিন্ন থানায় একাধিক মামলা রয়েছে। যা আদালতে বিচারাধীন।

নিহত ইউপি সদস্য আজিজুল ইসলাম ও রেয়াজুল ইসলাম হত্যার ঘটনায় গঙ্গাচড়া থানায় দু’টি পৃথক মামলা (নং ৭ ও ৮, তাং ৬ এপ্রিল ২০২০) দায়ের হয়। যা পরবর্তীতে রংপুর সিআইডি পুলিশ তদন্তের দায়িত্ব পান। সিআইডি পুলিশের হাতে গত ২৪ মে গ্রেফতার হয় ওই ২ খুনি আসামী।

এলাকায় ত্রাসের রাজত্ব কায়েকারী ও ২ খুনি সন্ত্রাসী গ্রেফতার হওয়ার সংবাদ পৌঁছা মাত্র এলাকাবাসীর মাঝে শুরু হয় খুশির আমেজ। খুশিতে তারা নিজেরে মাঝে মিষ্টি বিতরণ করতে থাকেন। যা অদ্যাবধি অব্যাহত রয়েছে বলে জানান এলাকাবাসী মোকলেছার, শফিকুল, কালাম, মুকুলসহ অনেকে।

আপনার সোস্যাল মিডিয়ায় শেয়ার দিন

এই ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ

© ২০২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | রংপুর সংবাদ.কম
Theme Customization By NewsSun