1. rkarimlalmonirhat@gmail.com : Rezaul Karim Manik : Rezaul Karim Manik
  2. kibriyalalmonirhat84@gmail.com : Golam Kibriya : Golam Kibriya
  3. mukulrangpur16@gmail.com : Saiful Islam Mukul : Saiful Islam Mukul
  4. maniklalrangpur@gmail.com : রংপুর সংবাদ : রংপুর সংবাদ
জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে কাউনিয়ায় গাছ কর্তন | রংপুর সংবাদ
শনিবার, ১৯ জুন ২০২১, ০৭:২৯ অপরাহ্ন

জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে কাউনিয়ায় গাছ কর্তন

সাইদুল ইসলাম,কাউনিয়া(রংপুর)প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় : সোমবার, ৩১ মে, ২০২১

কাউনিয়া উপজেলার টেপামধুপুর ইউনিয়নের বিশ্বনাথ গ্রামের আশিকুর রহমানেরবসতভিটা হতে উচ্ছেদের অপচেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় উভয়পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে। যে কোন সময় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষেরআশংকা করছেন এলাকাবাসী।

অভিযোগ ও ভুক্তভোগী সূত্রে জানাগেছে, পৈতিক সূত্রে প্রাপ্ত হয়ে আশিকুর রহমান তার নিজস্ব জমিতে ঘরবাড়ি নিমার্ন ও চলাচলের রাস্তা করে প্রায় ১৪/১৫বছর থেকে বসবাস করে আসছে। কিন্তু প্রতিপক্ষ আবু ছায়েদ এর বাড়ি আশিকুর রহমানের বাড়ির পিছন দিকে হওয়ায় সে দীর্ঘদিন থেকে উক্ত বসতভিটা হতে বিতারিত করার জন্য নানা ধরনের পায়তারা চালাচ্ছে। এরই মধ্যে গত ১৯মে বিকালে ছায়েদ গং আশিকুর রহমানের বাড়িতে দলবল সহকারে প্রবেশ করে আশিকুর রহমানের বসতবাড়ি ভেঙ্গে বিতারিত করবে এবং তাদের প্রাণে মেরে ফেলবে মর্মে বিভিন্ন ভয়ভীতি ও হুমকি প্রদর্শন করে।

এরই ধারাবাহিকতায় গত ২৯মে সকালে প্রতিপক্ষ আবু ছায়েদ গং একজোট হয়ে হাতে লাঠিশোঠা, দা, কুড়াল, হাসুয়া ও গাছ কাটার করাত নিয়ে দলবন্ধ হয়ে অভিযোগকারীর বাড়ির আঙ্গিনায় প্রবেশ করে চলাচলের রাস্তা বন্ধ করে দেয় এবং ১০/১৫বছর পূর্বের লাগানো দুইটি কাঁঠাল গাছ, একটি ডাউয়া গাছ, পাঁচটি সুপারি গাছ, একটি পানিয়াল গাছ ও
একটি তেজপাতা গাছ কেটে ক্ষতি সাধন করে। তখন অভিযোগকারীর পরিবারের লোকজন
এগিয়ে আসলে ছায়েদ গং দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে তাদের দিকে তেড়ে আসে। পরে পুলিশের
জরুরী সেবা ৯৯৯এ কল দিলে ছায়েদ গং দ্রুত পালিয়ে যায়। এ অবস্থায় পরিবার পরিজন নিয়ে
নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন বলে জানান ভুক্তভোগী আশিকুর রহমান।

এ ঘটনায় অভিযুক্ত ছায়েদ এর সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে তিনি ফোন রিসিভ
করেননি। টেপামধুপুর ইউপি চেয়ারম্যান মো. সফিকুল ইসলাম জানান, দুই ভাইয়ের
দীর্ঘদিনের পারিবারিক জমি সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছে। বিরোধ নিয়ে ইতিপূর্বে বসা হলেও উভয়পক্ষ একমত না হওয়ায় সমাধান সম্ভব হয়নি।

কাউনিয়া থানা অফিসার ইনচার্জ(ওসি)মাসুমুর রহমান বলেন, অভিযোগ পেয়েছি, তদন্ত
সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যাবস্থা নেয়া হবে।

আপনার সোস্যাল মিডিয়ায় শেয়ার দিন

এই ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ

© ২০২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | রংপুর সংবাদ.কম
Theme Customization By NewsSun