1. rkarimlalmonirhat@gmail.com : Rezaul Karim Manik : Rezaul Karim Manik
  2. maniklalrangpur@gmail.com : রংপুর সংবাদ : রংপুর সংবাদ
জাতীয় পর্যায়ে ন্যাশনাল ভলান্টিয়ার এওয়ার্ড-২০২৩ অর্জন করলেন আব্দুল মোমিন - রংপুর সংবাদ
মঙ্গলবার, ০৫ মার্চ ২০২৪, ১১:০০ পূর্বাহ্ন

জাতীয় পর্যায়ে ন্যাশনাল ভলান্টিয়ার এওয়ার্ড-২০২৩ অর্জন করলেন আব্দুল মোমিন

ডেস্ক রিপোর্ট
  • আপডেট সময় : বুধবার, ৬ ডিসেম্বর, ২০২৩
  • ৩৩৫ জন নিউজটি পড়েছেন

নীলফামারী প্রতিনিধি: জাতীয় পর্যায়ে কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে ন্যাশনাল ভলান্টিয়ার এওয়ার্ড-২০২৩ অর্জন করলেন নীলফামারীর দ্বীপ্তমান যুব উন্নয়ন সংস্থার সভাপতি আব্দুল মোমিন।

০৫ই ডিসেম্বর ২০২৩ সকাল ১০ টা হতে দুপুর ২টা পর্যন্ত ঐতিহ্যবাহী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট ভবনে ভলান্টারি সার্ভিস ওভারসিস এর আয়োজনে কর্মসংস্থান সৃষ্টি ও সবুজ চাকরি ক্যাটাগরিতে কার্যক্রমের অসামান্য অবদানের জন্য জাতীয় পর্যায়ে ন্যাশনাল ভলান্টিয়ার এওয়ার্ড ২০২৩ অর্জন করেন। প্রায় সারা বাংলাদেশ থেকে ১৫০০জন আবেদন করেন ।

জাতীয় পর্যায়ে কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে নীলফামারীর দ্বীপ্তমান যুব উন্নয়ন সংস্থার সভাপতি আব্দুল মোমিনকে ন্যাশনাল ভলান্টিয়ার এওয়ার্ড-২০২৩, সনদপত্র ও চেক তুলে দেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড.এ.এস.এম. মাকসুদ কামাল, বাংলাদেশে ব্রুনাই দারুস সালামের হাই কমিশনার মি. হারিস ওসমান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর (প্রশাসন) প্রফেসর ড. মুহাম্মদ সামাদ, যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের পরিচালক প্রশাসন মো: হামিদ খান, ভিএসও বাংলাদেশের কান্ট্রি ডিরেক্টও কাবিরুল হক কামাল, প্রজেক্ট ম্যানেজার শফিকুর রহমান প্রমুখ। এ সময় অতিথিবৃন্দ দ্বীপ্তমান যুব উন্নয়ন সংস্থার সভাপতি আব্দুল মোমিনকে এওয়ার্ড তুলে দেওয়ার সময় কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে অসামান্য অবদানের জন্য কার্যক্রমের প্রংসশা করেন। প্রতিটি কার্যক্রমে সবসময় পাশে থাকবেন বলে তারা জানান।

দ্বীপ্তমান যুব উন্নয়ন সংস্থার সভাপতি আব্দুল মোমিন কাজের স্বীকৃিত স্বরুপ পেয়েছেন ন্যাশনাল ভলান্টিয়ার এওয়ার্ড-২০২৩, যুব ভলান্টিয়ার এ্যাওয়ার্ড, উদ্যোক্তা এ্যাওয়ার্ড, বিশেষ পরিবেশ সন্মাননা এ্যাওয়ার্ড, ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প উদ্যোক্তা সন্মাননা, এসএমই ফাউন্ডেশনের সন্মাননা, শ্রেষ্ঠ যুব উদ্যোক্তা, জাতীয় ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প সমিতি,বাংলাদেশ(নাসিব) কেন্দ্রীয় কমিটি কর্তৃক সন্মাননা সহ বিভিন্ন পর্যায়ে সন্মাননা পেয়েছেন। তিনি মনে করেন তার কাজের স্বীকৃতি স্বরুপ সবচেয়ে বড় পুরষ্কার ও অনুপ্রেরণা হচ্ছে সমাজের ইতিবাচক পরিবর্তনের জন্য কাজ করা ও মানুষের অকৃতিম ভালোবাসা। মানুষের এই নির্ভেজাল ভালাবাসার শক্তিকে কাজে লাগিয়ে আজীবন সমাজের অসহায় মানুষের জন্য কাজ করে যেতে চান।

দ্বীপ্তমান যুব উন্নয়ন সংস্থার সভাপতি আব্দুল মোমিন ইয়ুথ ফোরাম নীলফামারী জেলা সভাপতি হিসাবে অত্র জেলার ৬ উপজেলার যুব সংগঠক, স্বেচ্ছাসেবক ও উদ্যোক্তাদের সংগঠিত করেছেন এবং রংপুর বিভাগীয় কমিটির সাধারন সম্পাদক হিসাবে রংপুর বিভাগের ৮টি জেলা ও ৫৮টি উপজেলার যুব সংগঠক, স্বেচ্ছাসেবক ও উদ্যোক্তাদের সংগঠিত করে কমিটি গঠন করেন। সমাজের অসহায় ও দারিদ্রমুক্ত টেকসই সমাজ গঠন করার জন্য বেকার যুবদের এ পর্যন্ত প্রায় ৮হাজার বেকার যুবদের কর্মসংস্থানমুখী প্রশিক্ষন প্রদানের মাধ্যমে দক্ষতা বৃদ্ধি, ১২২জন নতুন উদ্যোক্তা তৈরী, উদ্যোক্তা সৃষ্টির মাধ্যমে বিভিন্ন পরামর্শ প্রদান, ১৭৩জনকে ব্যাংকের মাধ্যমে আর্থিক সহযোগিতা প্রদান, ৫হাজার জনকে কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা, বিভিন্ন মেলায় অংশগ্রহণের সুযোগ সৃষ্টি সহ বিভিন্ন ভাবে প্রায় ২হাজার বেকার যুব/নারী স্বাবলম্বী করেছেন। উদ্যোক্তা ও কর্মসংস্থান সৃষ্টির জন্য প্রথম সাড়ি থেকে কাজ করে যাচ্ছে। সামাজিক কার্যক্রমে তিনি নীলফামারীতে বাল্যবিবাহ, যৌতুক ও ইভটিজিং প্রতিরোধে আলোচনা সভা, নির্যাতিত নারীদেও কারিগরি ও আর্থিক ভাবে আইনি সহায়তা, ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকদের মাঝে চারা বিতরন, বীজ বিতরণ, শব্দ দূষণের ক্ষতিকর প্রভাব ও আমাদের করনীয় শীর্ষক আলোচনা সভা, লিফলেট বিতরণ মানববন্ধন, স্যানিটেশন বিষয়ক আলোচনা সভা, ডেঙ্গুজ্বর রোধে আলোচনা সভা ও লিফলেট বিতরণ, বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত রোগিদের আর্থিক সহায়তা, মাদকবিরোধী আলোচনা সভা ও মাদকবিরোধী মানববন্ধন, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ বিরোধী আলোচনা সভা, করোনায় মাস্ক বিতরন ও জনসচেতনতা বৃদ্ধি, ত্রাণ বিতরণ, ভ্যাকসিন নেওয়ার ক্ষেত্রে সচেতনতা সহযোগীতা, স্কুল ও কলেজে ভর্তির জন্য আর্থিক সহযোগিতা, ঝড়ে পড়া শিক্ষার্থীদের স্কুলে ভর্তির ব্যবস্থা, ফরম ফিলাপের আর্থিক সহায়তা প্রদান, এতিম শিশুদের মাঝে শিক্ষা উপকরণ বিতরন, শীতার্তদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ, স্থানীয় সরকারের সাথে আইনশৃঙ্খলা উন্নয়ন কর্মকান্ড, সমাজবিরোধী কর্মকান্ডে প্রতিরোধে সচেতনতামূলক কার্যক্রম, যুব নেতৃত্ববিকাশ, যুবদের মধ্যে স্বেচ্ছাসেবী মনোভাব তৈরী, রক্তের গ্রæপ নির্ণয়, যুবদের নিয়ে খেলাধুলার আয়োজন, সাংস্কৃতিক ও বিতর্ক প্রতিযোগিতার আয়োজন করেন। এ পর্যন্ত প্রায় ১লক্ষ ২৫ হাজারেরও বেশি অসহায় মানুষের পাশে থেকে সহযোগিতা করেছি। যার মাধ্যমে জেলা প্রশাসন, উপজেলা প্রশাসন ও জেলায় সর্বত্র প্রসংশা অর্জন করেন।

আপনার সোস্যাল মিডিয়ায় শেয়ার দিন

Leave a Reply

এই ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ

© ২০২৩ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | রংপুর সংবাদ.কম
Theme Customization By NewsSun