রংপুর সংবাদ » ৫ মিনিটেই মূল্যবৃদ্ধির সর্বোচ্চ সীমায় রবি, বিক্রেতা নেই

৫ মিনিটেই মূল্যবৃদ্ধির সর্বোচ্চ সীমায় রবি, বিক্রেতা নেই


রংপুর সংবাদ ডিসেম্বর ২৬, ২০২০, ১:৩৩ অপরাহ্ন
৫ মিনিটেই মূল্যবৃদ্ধির সর্বোচ্চ সীমায় রবি, বিক্রেতা নেই

স্টাফ রিপোর্টার :

লেনদেন শুরুর পাঁচ মিনিটের মধ্যেই মূল্য বৃদ্ধির সর্বোচ্চ সীমা স্পর্শ করেছে রবি আজিয়াটা। তবে প্রাথমিক গণপ্রস্তাবে (আইপিও) বিজয়ীরা কম্পানিটির শেয়ার বিক্রি করতে রাজি হচ্ছেন না। ফলে রবি আজিয়াটা লিমিটেড –এর শেয়ার বিক্রেতা উধাও হয়ে গেছে।

আইপিও’র মাধ্যমে পুঁজিবাজার থেকে অর্থ উত্তোলন করেছে রবি। বৃহস্পতিবার (২৪ ডিসেম্বর) কোম্পানিটি শেয়ারবাজারে লেনদেন শুরু হয়েছে।

সকাল ১০ টায় লেনদেন শুরু হওয়ার পরপরই শেয়ারটির বিক্রেতা শূন্যের কোঠায় নেমে আসে। বিক্রেতা না থাকলেও ক্রেতার চাপ প্রায় সাড়ে আঠারো কোটি শেয়ারের কাছাকাছি। সকল জল্পনা -কল্পনা এড়িয়ে কম ইপিএসের শেয়ারটির চাহিদা তুঙ্গে।

এদিন লেনদেনের শুরুতে ১৪ টাকা করে কোম্পানির ২ লাখ ৬১ হাজার ১৭০টি শেয়ার ক্রয়ের প্রস্তাব আসে। তবে কেউ এ দামে রবির শেয়ার বিক্রি করতে রাজি হয়নি। এরপর কয়েক দফা দাম বেড়ে সর্বশেষ ১৫ টাকা করে ১৮ কোটি ৪২ লাখ ১৬ হাজার ৬৬২টি শেয়ার কেনার প্রস্তাব আসে। এতেই দাম বাড়ার সর্বোচ্চ সীমা স্পর্শ করে রবি। তবে এরপরও কোনো বিনিয়োগকারী তাদের কাছে থাকা কম্পানির শেয়ার বিক্রি করতে রাজি হননি। ফলে ক্রেতা থাকলেও শেয়ারটি বিক্রেতা শূন্য হয়ে পড়েছে।

নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) থেকে অনুমোদন নিয়ে রবি আজিয়াটার আইপিওতে আবেদন গ্রহণ শুরু হয় ১৭ নভেম্বর। যা চলে ২৩ নভেম্বর পর্যন্ত।

নেটওয়ার্ক সম্প্রসারণ এবং আইপিও খরচের জন্য রবিকে অভিহিত মূল্যে শেয়ার ইস্যুর মাধ্যমে ৫২৩ কোটি ৭৯ লাখ ৩৩ হাজার ৩৪০ টাকা সংগ্রহের অনুমোদন দেয় নিয়ন্ত্রক সংস্থা।

এই টাকা তোলার জন্য কোম্পানিটি ৫২ কোটি ৩৭ লাখ ৯৩ হাজার ৩৩৪টি সাধারণ শেয়ার আইপিওতে ইস্যু করে। এর মধ্যে ১৩ কোটি ৬০ লাখ ৫০ হাজার ৯৩৪টি শেয়ার কোম্পানির কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের মধ্যে ইস্যু করা হয়েছে।