রংপুর সংবাদ » পৌর নির্বাচনে অংশ নেবে বিএনপি

পৌর নির্বাচনে অংশ নেবে বিএনপি


রংপুর সংবাদ নভেম্বর ৩০, ২০২০, ৫:১৬ অপরাহ্ন
পৌর নির্বাচনে অংশ নেবে বিএনপি

স্টাফ রিপোর্টার :

২৫ পৌরসভার নির্বাচনে অংশ নেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিএনপি। রোববার রাতে অনুষ্ঠিত দলটির স্থায়ী কমিটির বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত হয়। 

সোমবার দুপুরে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। 

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বর্তমানে দেশে নির্বাচনের সার্বিক পরিস্থিতি অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের অনুকূলে নয় তথাপি স্থানীয় পর্যায়ে দলের সাংগঠনিক এবং রাজনৈতিক কার্যক্রম অব্যাহত রাখার স্বার্থে, নির্বাচন কমিশন ঘোষিত ২৫টি পৌরসভার মেয়র নির্বাচনে অংশ নেবে বিএনপি। 

বিএনপির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, স্থায়ী কমিটির বৈঠকে কোভিড-১৯ করোনাভাইরাস নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করা হয়। এতে বলা হয়, কোভিড-১৯ সংক্রমণের শুরু থেকেই সরকারের উদাসীনতা ও ব্যর্থতার কারণে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গেছে। দ্বিতীয় দফায় সংক্রমণের হার ব্যাপকহারে বেড়েছে। এখনও পরীক্ষার হার অত্যন্ত সীমিত।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে, পরিকল্পিতভাবে সংখ্যা কম দেখানোর ফলে সঠিক চিত্র জনগণের সামনে তুলে ধরা হচ্ছে না। অন্যদিকে হাসপাতালগুলোতে চিকিৎসার সুযোগ অত্যন্ত সীমিত থাকায় মৃত্যুর হারও বৃদ্ধি পাচ্ছে। বিশেষ করে বয়স্ক রোগীদের অক্সিজেন সরবরাহ ও ভেন্টিলেটরসহ আইসিইউ শয্যার সংখ্যা প্রয়োজনের তুলনায় অনেক কম হওয়াতে পরিস্থিতির আরও অবনতি ঘটছে।

ঢাকার বাইরেও মহানগর, জেলা ও উপজেলা হাসপাতালগুলোতে আইসিইউ বেড নেই বললেই চলে। কোভিড-১৯ প্রাদুর্ভাবের পর থেকে সরকার প্রায় এক বছর সময় পেয়েও সরকারি হাসপাতলগুলোতে চিকিৎসার পর্যাপ্ত ব্যবস্থা গ্রহণ করতে ব্যর্থ হয়েছে। সামগ্রিকভাবে চিকিৎসাব্যবস্থা ভেঙে পড়েছে। সরকারের চরম ব্যর্থতা, অযোগ্যতা, উদাসীনতা, দুর্নীতি এবং জনগণের জীবনের মূল্য না দেয়ায় এই ভয়াবহ পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে বলে সভা মনে করে। 

করোনার ভ্যাকসিন বণ্টন বিষয়ে স্থায়ী কমিটি মনে করে, সুষ্ঠু বিতরণের বিষয়টিও অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ব। প্রায় ১৬ কোটি মানুষের জন্য ৩২ কোটি ভ্যাকসিনের ডোজ প্রয়োজন হবে। বর্তমানে ‘দুর্নীতিগ্রস্ত’ স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ও সংশ্লিষ্ট দফতরের পক্ষে এই ব্যাপক কর্মযজ্ঞ সুষ্ঠুভাবে পালন করা সম্ভব নয় বলে এই কাজে সশস্ত্র বাহিনী ও অন্যান্য সংশ্লিষ্ট সংস্থাকে দায়িত্ব দেয়া উচিত। বেশ কয়েকটি উন্নত দেশেও সশস্ত্র বাহিনীকে কাজে লাগানোর কথা বলা হয়েছে।

বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান। তিনি লন্ডন থেকে ভার্চুয়াল এ সভায় যুক্ত হন। বিকাল থেকে রাত সাড়ে ৮টা পর্যন্ত বৈঠক হয়। 

সভায় উপস্থিত ছিলেন জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, ব্যারিস্টার জমিরউদ্দিন সরকার, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ড. আবদুল মঈন খান,  নজরুল ইসলাম খান, মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, সেলিমা রহমান ও ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু।