মঙ্গলবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২০, ০২:১৬ অপরাহ্ন

পাঁচশত টাকার জন্য স্ত্রীকে হত্যা, ঘাতক স্বামীসহ আটক ২

রংপুর সংবাদ
  • প্রকাশের সময়ঃ মঙ্গলবার, ১০ নভেম্বর, ২০২০

 

কিশোরগঞ্জ,নীলফামারী প্রতিনিধিঃনীলফামারী জেলার কিশোরগঞ্জ উপজেলায় ৫০০ টাকার জন্য নিজ স্ত্রীকে রশি পেঁচিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় থানায় মামলার প্রেক্ষিতে তার স্বামী হাফিজুল ইসলাম ও তার প্রতিবেশী নাজিম উদ্দিনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সোমবার (৯ নভেম্বর) বিকেলে আদালতের মাধ্যমে তাদের জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে।
পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, পুটিমারী ইউনিয়নের উত্তর ভেড়ভেড়ি গ্রামের এনামুল হকের মেয়ে মিনা বেগমের সঙ্গে ১৮ বছর আগে রণচণ্ডি ইউনিয়নের উত্তরপাড়া গ্রামের মৃত তফদার আলীর ছেলে হাফিজুলের বিয়ে হয়। জমানো টাকা কম পড়ার বিষয় নিয়ে রবিবার স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া বাঁধলে ওই হত্যার ঘটনা ঘটে

এর আগে রোববার (৮ নভেম্বর) সন্ধ্যা ৭টার দিকে উপজেলার রণচণ্ডী ইউনিয়নের উত্তর পাড়া গ্রামে ঘটনাটি ঘটে।
নিহত মিনার বাবা এনামুল হক অভিযোগ করে বলেন, ‘হাফিজুল পেশায় কাঠ ব্যবসায়ী। বিভিন্ন সময়ে ব্যবসার টাকা মেয়ে মিনার কাছে জমা রাখতো। আমার মেয়ে সরল বিশ্বাসে টাকা না গুণে জমা রেখে পুনরায় ফেরত দিতো। গত রবিবার জমানো টাকা ফেরত চাইলে একইভাবে বের করে দেয়। কিন্তু ৫০০ টাকা কম হওয়ার অজুহাতে তার স্বামী তাকে বেধড়ক মারধরের পর গলায় রশি পেঁচিয়ে শ্বাসরোধে হত্যা করে। সেই ঘটনা ভিন্ন খাতে নেওয়ার জন্য তার চাচা নাজিম উদ্দিনের পরামর্শে হাসপাতালে এনে মিনার লাশ রেখে পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় তাদের নামে রাতেই থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।
তিনি বলেন, ‘মেয়ে এবং নাতি-নাতনিদের সুখের জন্য তাদের বাড়ির সামনে সম্প্রতি একটি মুদি দোকান করে দেই। আশা করেছিলাম হাফিজুলের আয় এবং মুদি দোকানের আয় থেকে তারা সুখে দিন কাটাবে। কিন্তু আমার সে আশা আর পূরণ হলো না।’
কিশোরগঞ্জ থানার ওসি আব্দুল আউয়াল বলেন, ‘ঘটনার পর নিহত মিনার মরদেহ কিশোরগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নীলফামারী জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে মিনার স্বামী হাফিজুল ইসলাম ও তার সর্ম্পকীয় চাচা নাজিম উদ্দিনকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email
এ বিভাগের আরো সংবাদ
© All rights reserved © Rangpur Sangbad
Design & Develop By RSK HOST