1. rkarimlalmonirhat@gmail.com : Rezaul Karim Manik : Rezaul Karim Manik
  2. kibriyalalmonirhat84@gmail.com : Golam Kibriya : Golam Kibriya
  3. mukulrangpur16@gmail.com : Saiful Islam Mukul : Saiful Islam Mukul
  4. maniklalrangpur@gmail.com : রংপুর সংবাদ : রংপুর সংবাদ
রংপুরে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্তের হার ১০ শতাংশের উপরে - রংপুর সংবাদ
মঙ্গলবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২২, ০৩:০৬ পূর্বাহ্ন

রংপুরে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্তের হার ১০ শতাংশের উপরে

স্টাফ রিপোর্টার
  • আপডেট সময় : বৃহস্পতিবার, ১৩ জানুয়ারী, ২০২২

করোনা আক্রান্তের পরে সুস্থ হয়ে ওঠা রোগীদের ৯০ শতাংশই ফলোআপ চিকিৎসার জন্য আসেন না। ফলে করোনা থেকে সেরে ওঠার পরেও বিভিন্ন রোগের উপসর্গ বাসা বাঁধে অনেকের দেহে। অনেক ক্ষেত্রে তা জটিল আকার ধারণ করে। এমনটাই মনে করছেন চিকিৎসকরা। এদিকে, রংপুর বিভাগে করোনা শনাক্তের হার এক লাফে ১০ শতাংশের উপরে উঠেছে। ফলে স্বাস্থ্য বিভাগ চিন্তিত হয়ে পড়েছে।

নগরীর আসাদুজ্জামান নামে এক ব্যক্তি গত বছরের প্রথম দিকে করোনা আক্রান্ত হয়ে ডেলিকেডেট হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে যান। এর পরে তিনি আর ফলোআপ চিকিৎসা নেননি। তিনি জানান, এখনো শরীর অনেক দুর্বল লাগে। ডাক্তারে পরামর্শ নেব নেব করে নেওয়া হয়নি। তার মতো অনেকেই করোনা থেকে সেরে ওঠার পরে ফলোআপ চিকিৎসার জন্য ডাক্তারের পরামর্শ গ্রহণ করছেন না।
চিকিৎসদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, করোনা থেকে সেরে ওঠার পরে অন্য রোগের উপসর্গগুলো বেড়ে যায়। এতে রোগীরা বিভিন্ন স্বাস্থ্যগত জটিলতায় পড়েন। চিকিৎসকদের মতে, করোনা থেকে সেরে ওঠার পরে অন্তত একবার হলেও ডাক্তারের পরামর্শ নেওয়া উচিত। মোট কত শতাংশ করোনা আক্রান্ত রোগী ফলোআপ চিকিৎসা নিতে আসেননি-এমন কোনো পরিসংখ্যান স্বাস্থ্য বিভাগে না থাকলেও সংশ্লিষ্টদের ধারণা সুস্থ হওয়ার পরে ৯০ থেকে ৯৫ শতাংশ রোগীই ফলোআপ চিকিৎসার জন্য আসছে না। তবে করোনা আক্রান্তদের অন্য কোনো রোগ থাকলে সেইসব রোগীরা সেই রোগের চিকিৎসা নিচ্ছেন।

এদিকে, গত ২৪ ঘণ্টায় রংপুর বিভাগে করোনা শনাক্তের হার ১০ দশমিক ৮৪ শতাংশে উঠেছে। এর আগের দিন শনাক্তের হার ছিল ৫ দশমিক ১৯ শতাংশ। গত ২৪ ঘণ্টায় ১৬৬ জনের পরীক্ষা করে ১৮ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। এখন পর্যন্ত মোট ৩ লাখ ৯ হাজার ২৮২ জনের পরীক্ষা করে ৫৫ হাজার ৮৭৫ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ৫৪ হাজার ২৫৫ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় কোনো মৃত্যু না হলেও এখন পর্যন্ত মারা গেছেন এক হাজার ২৫২ জন।

রংপুর বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ডা. জাকিরুল ইসলাম লেলিন জানান, করোনা থেকে সুস্থ হওয়ার পরে একবার হলে ফলোআপ চিকিৎসা অথবা চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া প্রয়োজন। এছাড়া যাদের অন্যান্য রোগ রয়েছে, তাদের ওই রোগের চিকিৎসা গুরুত্ব সহকারে করা উচিত।

প্রায় একই ধরনের কথা বলছেন সিটি কর্পোরেশনের স্বাস্থ্য বিভাগীয় প্রধান ডা. কামরুজ্জামান তাজ। তিনি বলেন, করোনা আক্রান্ত রোগী সুস্থ হওয়ার পরে কোনো সমস্যায় পড়লে আমাদের জানালে আমরা তাদের পরামর্শ দেই। তবে অধিকাংশই রোগী সুস্থ হওয়ার পরে ফলোআপ চিকিৎসা অথবা পরামর্শের জন্য আসেন না।

আপনার সোস্যাল মিডিয়ায় শেয়ার দিন

এই ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ

© ২০২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | রংপুর সংবাদ.কম
Theme Customization By NewsSun