1. rkarimlalmonirhat@gmail.com : Rezaul Karim Manik : Rezaul Karim Manik
  2. kibriyalalmonirhat84@gmail.com : Golam Kibriya : Golam Kibriya
  3. mukulrangpur16@gmail.com : Saiful Islam Mukul : Saiful Islam Mukul
  4. maniklalrangpur@gmail.com : রংপুর সংবাদ : রংপুর সংবাদ
গঙ্গাচড়ায় বিমাতার রহস্যজনক মৃত্যু - রংপুর সংবাদ
রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৪:০৭ পূর্বাহ্ন

গঙ্গাচড়ায় বিমাতার রহস্যজনক মৃত্যু

গঙ্গাচড়া(রংপুর) প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় : মঙ্গলবার, ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০২১

গঙ্গাচড়ায় সতীনের ২ ছেলে কর্তৃক বিমাতাকে বিষপানে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার (১৩ সেপ্টেম্বর ) সন্ধ্যায় রংপুরের গঙ্গাচড়া উপজেলার নোহালি ইউনিয়নের শানতমিয়ার ডাঙ্গা গ্রামে।

স্থানীয়রা জানায়, ওই গ্রামের মৃত আব্দুর জব্বারের ছেলে আলহাজ্ব মহাসিন ওরফে মকম হাজীর (৭৫) প্রথম স্ত্রী ৮ বছর পূর্বে মারা যান।

এ দম্পতির ২ বিবাহিত ছেলে রয়েছে। এরা হলো বাবলু (২৭) ও রাকিবুল (২৫)। কিছুদিন পর বিপত্নীক পিতা মকম হাজী কারিনার বেগম (৩০) নামের এক মহিলাকে বিয়ে করেন।

কারিনা বেগম হলো নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলার পূর্ব দলীরাম কাকেয়াপাড়ার মৃত্য লোকমানের মেয়ে। মকম হাজীর ২ বিবাহিত ছেলে কারিনা বেগমকে বিমাতা হিসেবে মানতে অস্বীকৃতি জানায় ও অসদাচররণ করতে থাকে। পরে গ্রাম্য সালিশের মাধ্যমে ২ ছেলে কারিনাকে মায়ের স্বীকৃতি দেয়। বিয়ের দুই বছর পর বিমাতা কারিনার গর্ভে একটি সন্তান জন্ম নেয়। ওই নবজাতককে জন্মের পর দিনই বিষ প্রয়োগে হত্যা করে সতীনের ছেলেদ্বয়। মকম হাজী তার দুই ছেলেকে আইনের হাত থেকে বাঁচাতে স্ত্রী কারিনার নামে ২৭ শতক জমি দলিল করে দেন। এতে সতীনের ছেলে বাবলু ও রাকিবুল ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে এবং বিমাতাকে হত্যার ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়। অবশেষে দুজনে মিলে গত সোমবার দুপুরে কৌশলে ভাতের সাথে বিষ খাইয়ে বিমাতা কারিনার মৃত্যু ঘটায়। মৃত্য কারিনার মা হাছিনা বেওয়া বলেন, মোর বেটিক বাবলু আর রাকিবুল মারি ফেলাইছে। মুই সরকারের কাছে এর বিচার চাং। বাবা তোমরা এমন করি খরব ল্যাকমেন যাতে ওমার ফাঁসি হয়। মৃত্য কারিনার ভাই বোনের মৃত্যু কথা শুনে গঙ্গাচড়া মডেল থানায় ফোন করলে পুলিশ গিয়ে কারিনার কারিনার স্বামী মহাসিন এর বাড়ি থেকে কারিনার মৃত্যদেহ উদ্ধার করে। এর পর তার স্বামী আলহাজ্ব মহাসিন ওরফে মকমকে গ্রেপ্তার করে থানায় নিয়ে আসে।

গঙ্গাচড়া থানার অফিসার ইনচার্জ সুশান্ত কুমার সরকার মঙ্গলবার (১৪ সেপ্টেম্বর ) সকালে নিশ্তিত করে এ বিষয়ে বলেন, কারিনার মৃত্যদেহ ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হচ্ছে। কারিনার ভাই মোস্তফা বাদি হয়ে সকালে থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

গত সোমবার (১৩ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় রংপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এ সার্কেল) এটিএম আরিফ হোসেন, গঙ্গাচড়া মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ সুশান্ত কুমার সরকার, ইন্সপেক্টর (ইনভেষ্টিগেশন) নুর আলম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

আপনার সোস্যাল মিডিয়ায় শেয়ার দিন

এই ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ

© ২০২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | রংপুর সংবাদ.কম
Theme Customization By NewsSun
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com