1. rkarimlalmonirhat@gmail.com : Rezaul Karim Manik : Rezaul Karim Manik
  2. kibriyalalmonirhat84@gmail.com : Golam Kibriya : Golam Kibriya
  3. mukulrangpur16@gmail.com : Saiful Islam Mukul : Saiful Islam Mukul
  4. maniklalrangpur@gmail.com : রংপুর সংবাদ : রংপুর সংবাদ
পোশাক জানিয়ে দেবে হার্টের অবস্থা - রংপুর সংবাদ
রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৩:৫৩ পূর্বাহ্ন

পোশাক জানিয়ে দেবে হার্টের অবস্থা

অনলাইন ডেস্ক
  • আপডেট সময় : বুধবার, ৮ সেপ্টেম্বর, ২০২১

স্বাস্থ্য সচেতনতায় মানুষের আগ্রহ বেড়েছে ফিটনেস পণ্যে। তাই দ্রুত বড় হচ্ছে পরিধেয় প্রযুক্তি পণ্যের বাজার। আর এ বাজার ধরতে এখন প্রযুক্তি কম্পানিগুলোর পাশাপাশি উঠেপড়ে লেগেছে পোশাক কম্পানিগুলোও। স্মার্ট পোশাক নিয়ে বাড়ছে গবেষণা ও উদ্ভাবন। সম্প্রতি একদল গবেষক নতুন টি-শার্ট তৈরি করেছেন, যা প্রতি মুহূর্তে ব্যক্তির হৃৎকম্পন মনিটর করবে এবং জানিয়ে দেবে হৃদের অবস্থা। এ খাতে বিনিয়োগের নতুন সম্ভাবনা দেখছেন তাঁরা।

সিএনএন বিজনেসের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, যুক্তরাষ্ট্রের রাইস ইউনিভার্সিটির একদল গবেষক নতুন একটি উপাদান তৈরি করেছেন, যা সুতার মতো নরম আবার কেভলারের মতো শক্তিশালী। আবার মেটাল বা ধাতুর মতো পরিবাহী। এটি সাধারণ কাপড়ের মতো পরা যাবে, আবার ধোয়াও যাবে। তাঁরা বলছেন, ক্রীড়াবিদদের জন্য তৈরি পোশাকে এ উপাদান যুক্ত হলে এটি হবে স্মার্ট পরিধেয়, যা ক্রমান্বয়ে পরিধেয় প্রযুক্তি পণ্যের বিকল্প হয়ে দাঁড়াবে।

‘কার্বন ন্যানোটিউব থ্রেড’ নামক এই ফাইবার একটি ইলেকট্রোকার্ডিওগ্রাম (ইকেজি) মনিটরিং ডিভাইসে তারের মতো কাজ করবে, যা হার্টের অবস্থা শনাক্ত করতে হার্টের ছন্দ পরিমাপ করে। ফলে বিশেষ এ উপাদান স্কিনের ওপরে আলাদাভাবে লাগানোর প্রয়োজন হবে না বরং এটি একটি টি-শার্টে সেলাই করে দেওয়া যাবে। পরা যাবে সাধারণ অ্যাথলেটিক পোশাকের মতো।

রাইস ইউনিভার্সিটি ব্রাউন স্কুল অব ইঞ্জিনিয়ারিং ল্যাবের এই গবেষকরা বলছেন, এটি তারের মতো পরিবাহী হিসেবে কাজ করলেও তার নয়। বরং সুতার মতো এ উপাদান জামার মধ্যে আরামদায়কভাবেই থাকবে। স্বাভাবিকভাবে ধোয়া যাবে, টানলে বড় হবে, কিন্তু ছিঁড়ে যাবে না। ফলে বারবারই পরা যাবে। যদিও ভোক্তাদের জন্য ব্যাপকভাবে উৎপাদনের বিষয়টি এখনো অনেক দূরে, কিন্তু গবেষকরা বলছেন, এ উপাদান জামায় ব্যবহারের ফলে অনেক প্রযুক্তি পণ্য আর ব্যবহার করতে হবে না। যেমন মেডিক্যাল ইকেজি হলটার মনিটর, হৃৎকম্পন মনিটরিং ঘড়ি এবং অ্যাথলেটদের জন্য চেস্ট স্ট্র্যাপ ব্যবহার করতে হবে না। বিশেষ করে পরিধেয় প্রযুক্তি পণ্যের বিকল্প হিসেবে এর আরো অনেক সম্ভাবনাময় উপযোগিতা রয়েছে। গবেষণার প্রধান রচয়িতা লরেন টেইলর বলেন, ‘এই প্রযুক্তিকে আমরা পরবর্তী প্রজন্মের মিলিটারি ইউনিফর্ম হিসেবেও ব্যবহার করতে পারি। কারণ আমরা শুধু ইকেজি ইলেকট্রডের জন্য এই উপাদান ব্যবহার করতে পারছি তা নয়, এটিকে অ্যান্টেনা হিসেবেও ব্যবহার করতে পারছি। যাতে আমরা সামরিক কর্মীদের অবস্থান ট্র্যাক করতে পারি।’

প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান গার্নারের হিসাব অনুযায়ী, বিশ্বজুড়ে পরিধেয় প্রযুক্তিতে ব্যয় এ বছর ১৮ শতাংশ বেড়ে হবে ৮১.৫ বিলিয়ন ডলার। ২০২২ সালে এ বাজার বাড়বে আরো ১৫ শতাংশ। এরই মধ্যে অনেক প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানই পরিধেয় ডিভাইস খাতে বিপুল অঙ্কের বিনিয়োগ করেছে। অ্যাপল ২০১৮ সালে তাদের স্মার্টওয়াচে হৃৎকম্পন মনিটরিং যোগ করে। পরবর্তী সময়ে স্বাস্থ্যবিষয়ক আরো অনেক ফিচার যুক্ত করে।

২০১৩ সালে প্রথম রাইস ইউনিভার্সিটির গবেষকরা ন্যানোটিউব ফাইবার প্রযুক্তি উদ্ভাবন করেন। পরবর্তী সময়ে এটিকে জামায় সেলাইয়ের উপযোগী করতে দীর্ঘ গবেষণা ও প্রচেষ্টা চালিয়ে যেতে হয়। তাঁদের মতে, যদিও স্মার্ট শার্ট পুরোপুরি তারবিহীন নয়। শার্টের ন্যানোটিউব ফাইবার নিচে থাকা তারে সংকেত পাঠাবে, আর ওই তার ব্লুটুথ প্রযুক্তির মাধ্যমে একটি কম্পিউটারে এসব তথা পাঠিয়ে দেবে। গবেষণা টিমের অন্যতম সদস্য ওলিভার ডিউ বলেন, ‘আপনি ন্যানোটিউব ফাইবারের মতো নরম ও আরামদায়ক আর কিছু পাবেন না, যেটি পাওয়ার লাইন হিসেবেও কাজে লাগাতে পারছেন, আবার সেলাইও করতে পারছেন।’

সূত্র : সিএনএন বিজনেস।

আপনার সোস্যাল মিডিয়ায় শেয়ার দিন

এই ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ

© ২০২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | রংপুর সংবাদ.কম
Theme Customization By NewsSun
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com